ব্যাঙ্কের সাড়ে পাঁচ হাজার কোটি টাকা হাতিয়ে এ বার গুজরাতের ব্যবসায়ী নাইজেরিয়ায় পলাতক

নিতিন সানদেসার 


নিজস্ব প্রতিনিধি : মোদী জামানায়  একের পর এক ব্যাংক দুর্নীতিতে নাজেহাল দেশবাসী । তার উপর ব্যাংক দূর্নীতির অভিযোগ উঠল মোদির খাসতালুক গুজরাট রাজ্যের এক ব্যাবসায়ী সংস্থার বিরুদ্ধে । বিজয় মালিয়া, Sললিত মোদি, নীরব মোদি, মেহুল চোকসির পর এবার সামনে এল মোদি জমানার নয়া ব্যাংক জালিয়াতি। প্রায় ৫,৩৮৩ কোটি টাকার ঋণখেলাপির অভিযোগ উঠল গুজরাটের ব্যাবসায়ী নীতীন সনদেসারা এবং তাঁর পরিবারের  বিরুদ্ধে। গুজরাটের ভদোদারার স্টারলিং বায়োটেক নামে একটি সংস্থার মাধ্যমে প্রায় ৫,৩৮৩ হাজার কোটির জালিয়াতি করার অভিযোগ রয়েছে ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে। সনদেসারা ইতিমধ্যেই ই
ডি এবং সিবিআইয়ের ওয়ান্টেডের তালিকায় আছেন।

সিবিআইয়ের তরফে স্টারলিং বায়োটেকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। প্রতারণার অভিযোগ উঠেছে, ওই সংস্থার ডিরেক্টর নীতীন সনদেসারা, চেতন সনদেসারা, দীপ্তিবেন সনদেসারা, রাজভূষণ ওমপ্রকাশ দীক্ষিত, বিলাস যোশী, হেমন্ত হাথি এবং অনুপ গার্গের বিরুদ্ধে। এদের মধ্যে গার্গকে গ্রেপ্তার করা গিয়েছে। কিন্তু মূল তিন অভিযুক্ত ইতিমধ্যেই দেশ ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছে। এই সংস্থাটির মোট প্রায় ৩০০টি শাখা এবং বেনামি সংস্থা খুলে মোট প্রায় ৫,৩৮৩ হাজার টাকার প্রতারণা করেছে বলে অভিযোগ। কোম্পানির বার্ষিক হিসেবেও ইচ্ছেমতো গড়মিল করা হয়েছে। গুজরাট সরকার ও প্রশাসন সরাসরি এই কেলেঙ্কারির সাথে জড়িত বলে বিরোধীরা দাবি করেছেন । 

রবিবার খবর ছড়িয়ে পড়ে নীতীন সনদেসারা এবং তাঁর ভাই চেতন সনদেসারা, ভাইয়ের বউ দীপ্তিবেন সনদেসারা সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে ধরা পড়েছেন। সেই মতো ভারতের তরফে ওই ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করার জন্য ভারতের তরফে আমিরশাহীর কাছে আবেদন করারও প্রস্তুতি নিয়ে ফেলেছিলেন ভারতীয় আধিকারিকরা। কিন্তু, এরই মধ্যে জানা যায় সনদেসারাদের আমিরশাহিতে ধরা পড়েননি। নাইজেরিয়ায় পালিয়ে গিয়েছেন। তাৎপর্যপূর্ণভাবে নাইজেরিয়ার সঙ্গে ভারতের কোনও প্রত্যার্পণ চুক্তি নেই। তাই এই ফেরার ব্যবসায়ীদের দেশে ফেরানো বেশ কঠিন কাজ হবে । একের পর এক ব্যাংক দুর্নীতির অভিযোগে এমনিতেই চাপে মোদি সরকার। এর মধ্যে আবার নতুন অভিযোগ, তাও মোদির নিজের রাজ্যের ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে। নতুন ব্যাংক দুর্নীতির অভিযোগ রীতিমতো মাথাব্যথার কারণ হয়ে উঠতে পারে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে। তবে সকলের লক্ষ্য পরবর্তী সময়ে মোদী সরকার ঋণখেলাপিদেরদেশে ফেরানোরজন্য কি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন  

Comments